সর্বশেষ খবর এখানেই ......

নাটোরে বিস্ফোরকসহ ৪ জেএমবি আটক

0

নাটোর সদর উপজেলায় এক প্রবাসীর বাড়ি থেকে বিস্ফোরকসহ চার জেএমবি সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

 

সোমবার রাতে উপজেলার দিঘাপতিয়া চক ফুলবাড়ি এলাকার ওই বাড়ি থেকে ওই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

আটকরা হলেন নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার চাপাপুকুর গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম (৪০), একই গ্রামের মৃত ভিকু মণ্ডলের ছেলে ফজলুর রহমান (৩৬), সিংড়া উপজেলার আরকান্দি পশ্চিমপাড়ার ইউনুস আলীর ছেলে আনিছুর রহমান (৩৮) ও নলডাঙ্গা উপজেলার খোলাবাড়িয়া গ্রামের ফোজলার রহমানের ছেলে জাকির হোসেন ওরফে জাকির মাস্টার (৩৪)।

 

সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে দুবাই প্রবাসী ইকবাল সিকদারের বাড়িটি ঘিরে পুলিশের অভিযান শুরু করে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে অভিযান শেষে ইকবালের চাচাতো ভাই ও বাড়ির কেয়ারটেকার রফিক সিকদারসহ চারজনকে আটক করে সদর থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

 

নাটোর জেলার পুলিশ সুপার বিপ্লব বিজয় তালুকদার বলছেন, গ্রেপ্তার সবাই জঙ্গি দল জেএমবির সদস্য। সকালে ওই বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে পাঁচটি হাতবোমা, কিছু পেট্রোল, একটি জারকিন, তিনটি ধারালো অস্ত্র, একটি ল্যাপটপ, পাঁচটি মোবাইলফোন, একটি মডেম, পাঁচটি সিম, কিছু কাঁচের বোতল ও ফসফরাস জব্দ করা হয় বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

 

এছাড়া একটি ঘর থেকে শহরের বলারিপাড়ার পথকলি বিদ্যানিকেতনের প্রধান শিক্ষক রেজাউল করিমের বেশ কিছু ভিজিটিং কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। রেজাউল করিম ও জেলা পুলিশের কন্সটেবল বুলবুল হোসেন যৌথভাবে ওই বিদ্যালয়টি পরিচালনা করেন। এ নিয়ে রেজাউল করিমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

পাশের বাড়ির এক ব্যক্তি  জানান, বাড়িটিতে আমীর হামজা নামে দিঘাপতিয়া এমকে ডিগ্রি কলেজের এক শিক্ষার্থী থাকতেন। তিনি স্কাউট সদস্য ছিলেন।

 

পুলিশ সুপার বলেন, বাড়িটির চারদিকে চওড়া দেওয়াল, ভেতরে অন্ধকার। খাট বা চৌকি নেই। সব মিলিয়ে বাড়িটি জঙ্গি বসবাসের উপযোগী। তিনি বলেন, বাড়িটি দেখাশোনা করেন প্রবাসী ইকবালের চাচাতো ভাই রফিক সিকদার। নাটোর মসজিদ মার্কেটে ‘দুবাই মোবাইল’ নামে তাদের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.